৪ নভেম্বর, ২০১৮

অতিরিক্ত কেমোথেরাপিতে দৃষ্টি হারাতে বসেছেন সোনালি!


প্রায় বহুদিন ধরেই এই মরণ ব্যধি ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করছেন ৯০ দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সোনালি বেন্দ্রে। কেমোথেরাপির কারণে তাঁর সব চুল পড়ে গিয়েছে৷ সেই ছবিও নির্দ্বিধায় শেয়ার করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।
তবে সম্প্রতি নিউ ইয়র্কে চিকিৎসার জন্য কেমোথেরাপি নিতে হচ্ছে তাকে। ক্যান্সারে আক্রান্ত হলেও জীবন যুদ্ধ জয় করতে লড়াই করে যাচ্ছেন প্রতি নিয়ত। প্রতি মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে তাঁর জীবনের নানান মুহূর্ত শেয়ার করছেন সোনালি।
কিছুদিন আগেই তাঁর স্বামী গোল্ডি বেহল জানিয়েছিলেন, সোনালি ‘মেটাস্ট্যাটিক ক্যান্সারে’আক্রান্ত। তবে তিনি এখন অনেকটাই সুস্থ। তিনি এখন অনেকটাই ভালো আছেন আগের থেকে। মনের অদম্য সাহস নিয়ে এগিয়ে চলেছেন সোনালি। তাঁর যে চিকিৎসা চলছে তাতে যথেষ্ট সাড়া মিলেছে।
তবে সম্প্রতি সোনালির একটি পোস্টে আবারও শোকাচ্ছন্ন হয়ে গেল তার ভক্তরা৷ সম্প্রতি সোনালি ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্টে জানিয়েছেন যে কেমোথেরাপির জন্য তাঁর চোখের দৃষ্টিশক্তি কমে যাচ্ছে৷
কেমোথেরাপির নানা রকমের সাইড এফেক্টস হয় তা সকলেই জানে৷ তেমনই এই সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিলেন অভিনেত্রী৷ তাঁর দৃষ্টিশক্তি কমতে শুরু করে৷ পরিষ্কার কিছু দেখতে পাচ্ছিলেন না৷ বইও পড়তেও অসুবিধা হত তাঁর৷ যদিও পরে সব ঠিক হয়ে যায়৷
ক্যান্সারে আক্রান্ত সোনালির বেশিরভাগ সময় কাটছে বই পড়ে। আপাতত ‘A Little Life’ নামে একটি বই পড়া শুরু করতে চলেছেন সোনালি। তিনি জানিয়েছেন, তাঁর দৃষ্টি শক্তি কেমোথেরাপির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাই আগের বইটি শেষ করতে তাঁর বেশ কিছুটা সময় লেগে গেছে। কারণ, একটানা তিনি পড়ে উঠতে পারছিলেন না। তবে আপাতত তাঁর দৃষ্টি অনেকটাই ঠিক আছে বলেও জানিয়েছেন সোনালি।
খুব শীঘ্রই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবেন বলে আশা রাখছেন পরিবারের সদস্যরা। অন্যদিকে তাঁর ননদ জানিয়েছিলেন, মনের জোরে লড়ে যাচ্ছেন সোনালি। আশাকরি খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠবে। তবে কতদিন চলবে এই চিকিৎসা, কতদিনই বা লাগবে পুরোপুরি ঠিক হতে, তা স্পষ্ট জানা যায়নি।
প্রসঙ্গত, জুলাই মাসের প্রথম দিকে ক্যান্সারে আক্রান্ত হন অভিনেত্রী সোনালি বেন্দ্রে৷ তাঁর এই অসুস্থতার কথা খোলসা করে একটি পোস্ট করেছিলেন সোনালি৷
পোস্টে লিখেছিলেন, “যখন আমরা খারাপ কিছু আশা করি না, তখনই জীবন তোমাকে চমক দিয়ে বসে৷ সম্প্রতি আমি হাই গ্রেড ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছি৷ চিকিৎসাও শুরু হয়ে গিয়েছে৷ বেশ কয়েকদিন আগে শরীরে ব্যাথা অনুভব করছিলাম৷ ডাক্তারের কাছে যেতেই চিকিৎসা শুরু হয়৷ পরীক্ষা নিরীক্ষা হওয়ার পর জানতে পারি আমি ক্যান্সারে আক্রান্ত৷ আমার পরিবার এবং ঘনিষ্ঠ বন্ধুবান্ধবদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ৷ তাঁরা আমার পাশে যেভাবে এসে দাঁড়িয়েছেন, আমায় যেভাবে আমার সহযোগিতা করেছেন, তা শব্দে ব্যক্ত করা কঠিন৷ আমি খুবই ভাগ্যবান যে আমি এমন মানুষদের আমার পাশে পেয়েছি৷ তাঁদের প্রত্যেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি৷”

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: