৯ মার্চ, ২০১৮

বিএনপি নেতাকে আটকের কারণ ব্যাখ্যা দিলেন ওবায়দুল কাদের



রাস্তা বন্ধ করে সভা-সমাবেশ করায় পুলিশ বিএনপি নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শুক্রবার নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, বিএনপি রাস্তা বন্ধ করে বেআইনিভাবে সমাবেশ করতে যাওয়ায় পুলিশ বাধা দিয়েছে। এই ঘটনার জন্য বিএনপি নিজেরাই দায়ী।
“প্রেস ক্লাবের সামনের রাস্তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই রাস্তাটি বন্ধ করে বিএনপি যদি সমাবেশ করে সেই অবস্থায় পুলিশ তো হস্তক্ষেপ করবেই। রাস্তা বন্ধ করে সভা-সমাবেশ করা বেআইনি। সেই বেআইনি কাজটা বিএনপি করতে গিয়েছে।”
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে দলের কর্মসূচি থেকে বাবুকে আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ।
ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির নেতাকর্মীরা মামলার আসামি। আসামীরা এমনিতেই পালিয়ে পালিয়ে থাকে। সমাবেশের পর মামলার আসামিদেরকে যদি পুলিশ সামনে পায় তবে তাকে ছেড়ে দিবে?
সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপিকে সমাবেশ করতে অনুমতি দেওয়া হয়নি বলে মির্জা ফখরুলের অভিযোগের বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, সভার অনুমতি দেওয়া মেট্রোপলিটন পুলিশের ব্যাপার। পুলিশের কাছে তারা আবেদন করেছে, পুলিশই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার মালিক।
“দলীয়ভাবে এ ব্যাপারে আমাদের কোনো ইন্টারফেয়ার আছে-এটা মনে করা ঠিক নয়।”
আগামী জাতীয় নির্বাচনে বিএনপির লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের দাবির ব্যাপারে মন্ত্রী বলেন, যদি ডিসেম্বরে নির্বাচন হয়, সিডিউল ঘোষণার আনুসাঙ্গিক প্রস্তুতি চলছে। আগামী অক্টোবর থেকেই প্রস্তুতি শুরু হবে। ইলেকশন হওয়ার আগে ইলেকশনের সিডিউল ঘোষণা হবে। আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ সবাই নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে।
“আর লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড বিএনপি বলছে; লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডটা শিডিউল ঘোষণার পর। শিডিউলের আগে তো লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের ব্যাপারে ইলেকশন কমিশনারের কোনো করণীয় নেই। ইলেকশন কমিশনারের কিছু করণীয় থাকে সেটা হলো যখন সিডিউল হবে তখন।”
সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আট কিলোমিটার দীর্ঘ ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের কাজটি সম্পন্ন করতে ১৮ কোটি ১৪ লাখ টাকা খরচ হবে।
“যদিও বাস্তবায়নকাল ছয় মাস ধরা হয়েছে, তবুও আমরা এপ্রিল মাসের মধ্যেই এ কাজটি সমাপ্ত করতে চাই। বর্ষাকালে জনদুর্ভোগ হবে, ভোগান্তি হবে। সেটা বিবেচনা করেই এখন দিনরাত এখানে কাজ করা হচ্ছে। নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে যাতে তিন মাস আগেই কাজটি সম্পন্ন হয়।
“সারা দেশের ব্যাপারে বলছি, বর্ষার আগেই সড়কের যত রাস্তা আছে, নেটওয়ার্ক আছে, মহাসড়ক, জাতীয় মহাসড়ক, আঞ্চলিক মহাসড়ক ও জেলা সড়ক আছে বর্ষার আগেই ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা সংস্কারের কাজ শেষ করতে হবে।”
যেকোনো মূল্যে ভরা বর্ষার আগেই সড়কের সব রাস্তা মেরামত কাজ শেষ করতে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, কোথাও কাজের মান খারাপ হবে না। কাজের মান খারাপ হলে সেখানে প্রকৌশলী, ঠিকাদারসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে জবাবদিহি করতে হবে, কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।
“ভালো কাজ হলে পুরস্কার এবং নিম্নমানের কাজ হলে শাস্তি ভোগ করতে হবে।”
বেলা ১১টায় মন্ত্রী শহরের চাঁদমারী এলাকায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের সংস্কার কাজ পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় সেতুমন্ত্রীর সঙ্গে সড়ক ও জনপদ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: