৬ জানু, ২০১৮

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা যশোরে ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি

পৌষের মাঝামাঝি এসে দেশের বিভিন্ন স্থানের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা আরো কিছু দিন অব্যাহত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

শুক্রবার সকালে আবহাওয়া কার্যালয়ের কর্মকর্তা আবহাওয়াবিদ হাফিজুর রহমান বলেন, ‘আজ দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।’

পূর্বাভাসে আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, সারা দেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে। দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। এ ছাড়া অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারা দেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।

তীব্র শীতে সবচে বেশি সমস্যা হচ্ছে শিশু, বৃদ্ধ ও রোগীদের। যশোর জেনারেল হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ঠান্ডাজনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে ইতোমধ্যে ধারণক্ষমতার তিনগুণ রোগী ভর্তি হয়েছে। শ্রমজীবী সাধারণ মানুষও শীতে কষ্ট পাচ্ছে। একান্ত বাধ্য না হলে কেউ ঘর থেকে বের হচ্ছে না।

শীতের সঙ্গে প্রচণ্ড কুয়াশা থাকায় যান চলাচলও প্রায় স্থবির হয়ে পড়েছে। তবে বেলা ১১টার দিকে কুয়াশা ভেদ করে সূর্য ওঠার পর এ অঞ্চলের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে শুরু করে।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: