২০ নভেম্বর, ২০১৭

যশোরে ৪৩ কোটি টাকার দরপত্রে অংশ নেননি ঠিকাদাররা

নির্মাণসামগ্রীর বাজারমূল্যের চেয়ে এলজিইডি নির্ধারিত মূল্য কম অভিযোগ তুলে যশোরে ৪৩ কোটি টাকার নির্মাণকাজের দরপত্রে সাড়া দেননি ঠিকাদাররা। তাদের অভিযোগ, এলজিইডির দরপত্রে নির্মাণসামগ্রীর দাম ৫/৭ শতাংশ কমানো হয়েছে। এতে এলজিইডি নির্ধারিত মূল্যে নির্মাণসামগ্রী ক্রয় করা সম্ভব নয়। নির্ধারিত মূল্যে নির্মাণকাজ করতে গেলে ঠিকাদারদের ক্ষতির মুখে পড়তে হবে। নির্মাণসামগ্রীর মূল্য পুনর্নির্ধারণ না করলে ঠিকাদাররা কঠোর আন্দোলনে নামারও ঘোষণা দেন। শনিবার দুপুরে প্রেস ক্লাব যশোর মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ঠিকাদাররা। 

এলজিইডি তালিকাভুক্ত ঠিকাদারদের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মীর জহুরুল ইসলাম। তিনি অভিযোগ করেন, নির্মাণসামগ্রীর দাম কম নির্ধারণ করায় চলতি অর্থবছরে জনগুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো উন্নয়ন ও রক্ষণাবেক্ষণ প্রকল্পের ৫১টি গ্রুপের প্রায় ৪৩ কোটি টাকার দরপত্রে ঠিকাদাররা অংশ নেননি। গত ৮ ও ১৬ নভেম্বর দু'দফায় এ দরপত্র আহ্বান করা হয়। নির্মাণসামগ্রীর দাম পুনর্নির্ধারণ না হলে ঠিকাদাররা দরপত্র বর্জন করবেন এবং দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত ধারাবাহিক কর্মসূচি চলবে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন লুৎফর রহমান, রেজাউল হক বিন্দু, আবু সাঈদ, মনিরুজ্জামান তপন, বাদল বিশ্বাস, আলী হায়দার মিলন, জিয়াউল ইসলাম, সাঈদুজ্জামান, শুভংকর বিশ্বাস, জামসেদ খান চঞ্চল, আকবর হোসেন, ইকবাল আহমেদ রবি, হুমায়ন কবীর, আবদুর রাজ্জাক, আবদুর রহিম, আসাদুজ্জামান প্রমুখ।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: