২১ অক্টোবর, ২০১৭

গুড়িগুড়ি বৃষ্টি ঝরবে শনিবারও

বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ অবস্থান করার প্রভাবে সারা দেশেই গতকাল রাত থেকেই গুড়িগুড়ি বৃষ্টি শুরু হয়েছে। আজ শুক্রবার, সাপ্তাহিক ছুটির দিনেও তা অব্যাহত আছে। সকালে আবহাওয়া কার্যালয় জানিয়েছে, আগামীকাল শনিবারও তা থেমে থেমে চলবে।
নিম্নচাপের কারণে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।
এ ছাড়া উপকূল তীরবর্তী অঞ্চল এক থেকে দুই ফুট উচ্চতায় বায়ুতাড়িত জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে বলেও সতর্ক করেছে আবহাওয়া কার্যালয়। এর কারণে উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, নোয়াখালী, চাঁদপুর, ভোলা, বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, ঝালকাঠী, পিরোজপুর, খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা ও তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহের বাসিন্দাদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।
ঢাকায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৫০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে জানিয়েছে ঢাকা আবহাওয়া কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মিজানুর রহমান। তিনি জানান, এ ছাড়া এই সময়ে দেশে সবচেয়ে বেশি হয়েছে পটুয়াখালীর খেপুপাড়ায়। সেখানে ৬৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।
ছুটির দিনে যাঁরা বাসায় আছেন তাঁদের জন্য এই ‘গরম-কমানো’ বৃষ্টি বেশ উপভোগ্য হলেও, ভোগান্তিতে পড়েছেন যারা সকাল সকাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে বেরিয়েছেন। অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের কাকভেজা হয়ে পৌঁছাতে নির্ধারিত পরীক্ষাকেন্দ্রে। আবার ফিরতেও হয়েছে এই ভোগান্তির মধ্যে। যানবাহনের স্বল্পতার সঙ্গে গুড়িগুড়ি বৃষ্টি ছিল বাড়তি বিড়ম্বনা। তবে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন শ্রমজীবী ও ছিন্নমূল মানুষ।
আবহাওয়া চিত্রের সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়, পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত নিম্নচাপটি উত্তর ও উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে বর্তমানে স্থল নিম্নচাপে রূপ নিয়ে উড়িষ্যা ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ু চাপের তারতম্যের অধিক্য বিরাজ করছে এবং গভীর সঞ্চালন মেঘমালা তৈরি অব্যাহত রয়েছে।
এর প্রভাবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন স্থানে বজ্রসহ বৃষ্টি এবং কোথাও কোথাও ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে বলে আবহাওয়া কার্যালয়ের বরাত দিয়ে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা বাসস।
রাজশাহী, রংপুর, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: