৩০ অক্টোবর, ২০১৭

মালয়েশিয়ায় বিনিয়োগের অনুমতি পেল আকিজ গ্রুপ

মালয়েশিয়ায় বিনিয়োগের অনুমতি পেল আকিজ গ্রুপ। গতকাল সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এ বিষয়ে নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়। আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ থেকে আকিজ গ্রুপকে অনুমোদন দেয়ার প্রস্তাবটি বৈঠকে উত্থাপন করা হয়।
বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান জানান, মালয়েশিয়ায় বিনিয়োগের যে প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল, তাতে কমিটি অনুমোদন দিয়েছে। এ ধরনের উদ্যোগকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছে কমিটি। প্রস্তাবটি যেভাবে এসেছিল, সেভাবেই অনুমোদন দেয়া হয়েছে।
কমিটির বৈঠকে উপস্থাপনের জন্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কামরুন নাহার আহমেদ স্বাক্ষরিত প্রস্তাবনায় বলা হয়, এ বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের মতামত চাওয়া হয়েছিল। এর পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক-১ আহমেদ জামালকে প্রধান করে ‘বাংলাদেশী উদ্যোক্তা কর্তৃক বিদেশে বিনিয়োগসংক্রান্ত প্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটি (পিইসি)’ গঠন করা হয়। পিইসি বিদেশে বিনিয়োগের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিভিন্ন দিক যাচাই-বাছাই করে সম্প্রতি আকিজ গ্রুপের মালয়েশিয়ায় বিনিয়োগের আবেদনে ইতিবাচক মত দিয়েছে। তবে এর পাশাপাশি ১৩টি শর্ত দিয়েছে পিইসি।
আকিজ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ বশির উদ্দিন বণিক বার্তাকে বলেন, সব প্রক্রিয়া যথাযথভাবে অনুসরণ করে সংশ্লিষ্টদের সন্তুষ্টির পর অনুমোদনটি আমরা পেয়েছি। আমাদের প্রতিষ্ঠানটি ৭৩ বছরের পুরনো। প্রতিষ্ঠানের শক্তিশালী মৌলিক ভিত্তি অনুমোদনটি পাওয়ার ক্ষেত্রে ভূমিকা রেখেছে। আমাদের রফতানি আয় ২ হাজার কোটি টাকার বেশি। বিনিয়োগের জন্য যে ২ কোটি ডলার প্রয়োজন, তা আমাদের প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব অর্জিত রফতানি কোটা (এক্সপোর্ট রিটেনশন কোটা) থেকেই ব্যবহার হবে। অনুমোদন পেয়ে আমরা অত্যন্ত খুশি ও সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞ।
রফতানি বাণিজ্যের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রতিষ্ঠানের বিচরণ আগে থেকেই ছিল জানিয়ে শেখ বশির উদ্দিন বলেন, সরকারের অনুমোদনের মাধ্যমে এখন স্থানীয় বিনিয়োগকারী থেকে আমরা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আরো শক্তিশালী অবস্থান তৈরি করতে পারব বলে আশা করছি। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কারখানা পরিচালনা আমাদের জন্য নতুন অভিজ্ঞতা হবে। এ অভিজ্ঞতা থেকে আমরা শিখব। বিদেশে বিনিয়োগের মাধ্যমে আমাদের প্রতিষ্ঠানের যে মুনাফা হবে, তা দীর্ঘমেয়াদে দেশের অর্থনীতিতেও ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। অনেক শর্ত পরিপালন করে আমাদের কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। এ ধরনের বিনিয়োগের মাধ্যমে দেশের অর্থনীতির ব্যাপকতা নিশ্চিতভাবেই আরো বাড়বে।
আকিজ গ্রুপের ব্যবসা রয়েছে টেক্সটাইল, পাট, তামাক, সিরামিক, প্রিন্টিং ও প্যাকেজিং, ওষুধ, ভোগ্যপণ্যসহ অন্যান্য খাতে।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: