২৩ মে, ২০১৭

কে এই হুররাম?




হুররাম সুলতান’ নামটির সঙ্গে চোখের সামনে ভেসে ওঠে অদ্ভুত সুন্দর এক নারীমূর্তি। বিশ্বের অন্যতম সুন্দরী নারীর মধ্যে এ নামটিও এখন উচ্চারিত। তবে কারো কারো কাছে অপূর্ব এই হুররাম এক খলনায়িকা। যার মধ্যে ঘরোয়া রাজনীতির কূটকৌশল ও সম্রাজ্ঞী হওয়ার লোভ প্রবল। কেউবা আবার বলছেন, হুররাম যা করছে, ঠিকই আছে। সেসব বাকবিতণ্ডায় নাইবা গেলাম।
কিন্তু কে এই হুররাম! সেটা জানার আগ্রহ নিশ্চয়ই জাগছে মনে। তার আসল নাম মারিয়াম উজারলি। জার্মান এ অভিনেত্রী এখন বিশ্বব্যাপী ‘হুররাম সুলতান’ নামেই বেশি পরিচিতি। এ দেশের পর্দায় হুররামকে দর্শক আবিষ্কার করেন ‘সুলতান সুলেমান’ নামের টিভি সিরিয়ালের মধ্য দিয়ে।
তুর্কি টিভি সিরিয়াল ‘মুহতেসেম ইউজিল যার ইংরেজি নাম ‘দ্য ম্যাগনিফিসেন্ট সেঞ্চুরি’র বাংলায় ডাবিংকৃত টিভি সিরিজটি দেশে প্রচারের পর থেকেই তার সম্পর্কে জানার আগ্রহ বাড়তে থাকে। বর্তমানে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও তুমুল জনপ্রিয় এই হুররাম সুলতান।
অটোম্যান সুলতানকে প্রেমের জালে আবদ্ধ করে হুররাম সাধারণ দাসী থেকে সম্রাজ্ঞী হওয়ার অসাধারণ গল্পের রানী। যার তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বী সুলেমানের প্রথম স্ত্রী মাহিদেভরান সুলতান, সুলেমানের মা আয়েশা হাফসা সুলতানা, সুলতানের বাল্যবন্ধু এবং পরবর্তী সময় সাম্রাজ্যের প্রধান উজির ইব্রাহীম পাশা।
প্রায় ৭০০ বছর ধরে তুরস্কের অটোম্যান সাম্রাজ্যের রাজত্ব ছিল পৃথিবীজুড়ে। এ সাম্রাজ্যের স্বর্ণযুগ ছিল সুলতান সুলেমানের নেতৃত্বে ষোড়শ থেকে সপ্তদশ শতাব্দী। ক্ষমতার টানাপড়েনে অটোম্যান সাম্রাজ্যের ষড়যন্ত্র, গুপ্তহত্যা, ভাই হত্যা, সন্তান হত্যা এবং দাসপ্রথার অন্তরালের কাহিনী নিয়ে নির্মিত মেগা সিরিয়ালে সবচেয়ে উজ্জ্বল নক্ষত্র হুররাম সুলতান।
এই অপরূপ সুন্দরী রানীর কারণেই ধীরে ধীরে সুলতানের প্রাসাদে দানা বাঁধতে থাকে বিদ্বেষ। পরিপ্রেক্ষিতে ক্রমেই ধ্বংসের দিকে যেতে থাকে অটোম্যানরা।
মজার ব্যাপার হল, অটোম্যান সাম্রাজ্যের ওই রানী বলতে এখন বিশ্বের সবাই মারিয়াম উজারলিকে চিনে থাকেন। চরিত্রের সঙ্গে একেবারেই মিশে গিয়েছিলেন তিনি। জার্মান এ মডেলকে এ চরিত্রে নেয়াটা হুট করেই যেন হয়েছে। ইতিহাসনির্ভর এ হুররাম চরিত্রের জন্য উপযুক্ত কাউকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। প্রায় আট মাস ধরে চলে ‘হুররাম’-এর খোঁজ। এরপর ২০ হাজারের বেশি প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে ওই চরিত্রের জন্য নির্বাচিত হন মারিয়াম।
সুলতান সুলেমানে সম্পৃক্ত হওয়া প্রসঙ্গে বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে ৩২ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী বলেন, ‘হঠাৎ শুটিংয়ের জন্য তুরস্কে আসার আমন্ত্রণ জানানো হয়। শুটিংয়ের জন্য পাক্কা দুই বছর হোটেলেই থাকতে হয়েছে আমাকে।’ সুলতান সুলেমানের আগেও জার্মান প্রোডাকশনে টেলিভিশন সিরিজ নটরুফ হাফেনকান্তে, আইন ফাল ফ্যুয়ের সোয়াই ছাড়াও জার্নি অব নো রিটার্ন, ইয়েটস আবের বালেট ছবিতে অভিনয় করেন মারিয়াম। কিন্তু ২০১১ সালের সুলতান সুলেমানে অভিনয়ের মধ্য দিয়েই সর্বাধিক খ্যাতির দেখা পান এ তারকা।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: