১০ এপ্রিল, ২০১৭

চলতি অর্থ-বছরে তৈরি পোশাকে রপ্তানি আয় বেড়েছে ২.৩৯ শতাংশ





চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রথম নয় মাস অর্থাৎ জুলাই-মার্চ মেয়াদে তৈরি পোশাক খাতের পণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছে ২ হাজার ৯২ কোটি ৮৮ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার; যা এ সময়ের রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৫.৯৮ শতাংশ কম।

তবে গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় এবার এ খাতের পণ্য রপ্তানি আয় ২.৩৯ শতাংশ বেড়েছে।

চলতি এপ্রিল মাসে প্রকাশিত বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে এসব তথ্য জানা যায়।

ইপিবির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে নিটওয়্যার পণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছে ১ হাজার ১৪ কোটি ৩৫ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার। একই সময়ে ওভেন গার্মেন্টস পণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছে ১ হাজার ৭৮ কোটি ৫২ লাখ ৮০ হাজার মার্কিন ডলার।

এতে আরও জানানো হয়েছে, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে নিটওয়্যার পণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছিল ১ হাজার ৩৩৫ কোটি ৫৪ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার। এর মধ্যে ওই বছরের নয় মাসে আয় হয়েছিল ৯৬৭ কোটি ৪৩ লাখ ২০ হাজার মার্কিন ডলার। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে আলোচ্য খাতে রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১ হাজার ৪১৬ কোটি ৯০ লাখ মার্কিন ডলার।

চলতি অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে নিটওয়্যার পণ্যে রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ১ হাজার ৩৮ কোটি ২০ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার। আলোচ্য সময়ের মধ্যে এই খাতে বৈদেশিক মুদ্রা আয় হয়েছে ১ হাজার ১৪ কোটি ৩৫ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২.৩০ শতাংশ কম।  তবে গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় আলোচ্য খাতের রপ্তানি আয় ৪.৮৫ শতাংশ বেড়েছে।

প্রতিবেদনে আরও জানানো হয়েছে, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ওভেন গার্মেন্টস পণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছিল ১ হাজার ৪৭৩ কোটি ৮৭ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার।  এর মধ্যে ওই অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে আয় হয়েছিল ১ হাজার ৭৬ কোটি ৫৭ লাখ ৬০ হাজার মার্কিন ডলার। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে আলোচ্য খাতে রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ১ হাজার ১৮৭ কোটি ৭৫ লাখ মার্কিন ডলার।

চলতি অর্থবছরের জুলাই-মার্চ মেয়াদে ওভেন গার্মেন্টস পণ্য রপ্তানিতে বৈদেশিক মুদ্রা আয় হয়েছে ১ হাজার ৭৮ কোটি ৫২ লাখ ৮০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৯.২০ শতাংশ কম।  তবে গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় আলোচ্য খাতের রপ্তানি আয় ০.১৮ শতাংশ বেড়েছে।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: