৩১ মার্চ, ২০১৭

বিপুল ভোটে বিজয়ী জয়া সেনগুপ্ত

সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই-শাল্লা) উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জয়া সেনগুপ্ত বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয় লাভ করেছেন।
বৃহস্পতিবার দিরাই ও শাল্লা উপজেলার ১১০টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ হয়। এই উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকে জয়া সেনগুপ্ত পেয়েছেন ৯৬ হাজার ২৬০ ভোট। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ছায়েদ আলী মাহবুব রেজু সিংহ প্রতীকে পেয়েছেন ৪২ হাজার ১৭০ ভোট।
প্রয়াত সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত এই আসন থেকে ৭ বার এমপি নির্বাচিত হন। তবে অন্যান্য নির্বাচনের তুলনায় এই প্রথম ভোটার উপস্থিতি ছিল তুলনামূলক অনেক কম। এই আসনে মোট ২লাখ ৪৬ হাজার ৪৩১ ভোটারের মধ্যে ১ লাখ ৩৮ হাজার ৪৩০ ভোটার ভোট দিয়েছেন।
এর মধ্যে শাল্লায় ৪৭ হাজার ৯৫৭ ভোটের মধ্যে নৌকা প্রতীকে জয়া সেনগুপ্তা ৩৬টি কেন্দ্রে পেয়েছেন ৩৮ হাজার ৯০০ এবং সিংহ প্রতীকে ছায়েদ আলী মাহবুব পেয়েছেন ৯ হাজার ৫৭ ভোট।
দিরাইয়ে ৭৪টি কেন্দ্রে ১ লাখ ৬৮ হাজার ২৯৯ ভোটারের মধ্যে ৯০ হাজার ৪৭৩ জন ভোটার ভোট দিয়েছেন। এর মধ্যে নৌকা প্রতীকে জয়া সেনগুপ্তা পেয়েছেন ৫৭ হাজার ৩৬০ ভোট। স্বতন্ত্র প্রার্থী ছায়েদ আলী মাহবুব পেয়েছেন ৩৩ হাজার ১১৩ ভোট।
ভোট গ্রহণ শেষে নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা এস এম এজহারুল হক বলেছেন, শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে। বৃষ্টির কারণে কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম ছিল।
ড. জয়াসেনগুপ্ত বলেন, বৈরি আবহাওয়ার কারণে ভোটার উপস্থিতি কম হয়েছে। সুরঞ্জিত সেনের মর্যাদা সরকারের উন্নয়নের পক্ষে মানুষ ভোট দিয়েছে।
গত ৫ ফেব্রুয়ারি এই আসনের সাংসদ ও আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তর মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী হিসেবে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তর স্ত্রী জয়া সেনগুপ্তকে মনোনয়ন দেয়। তার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ছায়েদ আলী মাহবুব হোসেন।
উপনির্বাচনে পাঁচজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিলেও একজন প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হয়ে যায়। পরে আরও দুই প্রার্থী জাতীয় পার্টির শেখ মো. জাহির আলী ও জাসদের আমিনুল ইসলাম মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। এ আসনে মোট ভোটার দুই লাখ ৫২ হাজার ৪৩০ জন।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: