২১ মার্চ, ২০১৭

অফিসে যৌন নিপীড়ন: অভিযোগকারী পাবেন ৯০ দিনের সবেতন ছুটি

কোনো নারী সরকারি কর্মচারী অফিসে যৌন নিগ্রহের শিকার হওয়ার অভিযোগ দায়েরের পর তাকে ৯০ দিনের সবেতন ছুটি (পেইড লিভ) দেওয়া হবে। এই ছুটিকালীন সময়ের ভেতর তদন্ত ও বিচারিক কাজ শেষ করতে হবে। এমন বিধি-ব্যবস্থা করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।
মঙ্গলবার ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমকে জানায়, ওই ছুটি অভিযোগকারী নারীর অর্জিত ছুটি বা অন্য কোনো ছুটি থেকে কাটা হবে না- এটা হবে বিশেষ ছুটি।
নয়া নিয়মে বাধাদান, নিষিদ্ধকরণ ও প্রতিরোধ আইন-২০১৩ মোতাবেক কর্মস্থলে যৌন উৎপীড়নের তদন্ত চলাকালীন পীড়িত নারীকে ৯০ দিনের ছুটি দেওয়া যেতে পারে।
এই আইনটি কর্মজীবী নারীদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ এ কারণে যে দেখা গেছে এ ধরনের ক্ষেত্রে অভিযোগকারী নারীকে বরখাস্ত বা উল্টো অপবাদে জর্জরিত করার ভয় দেখিয়ে অভিযোগ প্রত্যাহার বা পরিবর্তনে বাধ্য করা হয়।
ঘরে-বাইরে পথে-ঘাটে নারী নির্যাতন যেভাবে বেড়ে চলেছে তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অফিস বা কর্মস্থলেও তা বিস্তার লাভ করছে- বিভিন্ন কৌশলের আবরণে। সে বিচারেও এ ধরনের আইন নারীদের সুরক্ষায় ইতিবাচক ভূমিকা রাখতে পারে।
একই সঙ্গে শুরুতে এমন আইনের সুবিধা শুধু ভারতের সরকারি দপ্তরে কর্মরত নারীরা পেলেও এর ইতিবাচক প্রভাবে পরে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোও এর অনুসরণে তৎপর হবে- এটা ধারণা করা যায়। কোনো একটি দেশে এ ধরনের উদ্যোগের অনুসরণ করে পরবর্তীতে অন্যান্য দেশও।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: