২৯ মার্চ, ২০১৭

বাগেরহাটে ট্রলার ডুবিতে ৪ জনের লাশ উদ্ধার



বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের পানগুছি নদীতে মঙ্গলবার সকালে ১০ টায় যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবিতে ৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় নারী, শিশু ও বৃদ্ধসহ আরো অর্ধশত নিখোঁজ রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী কোস্টগার্ড ও ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানায়, মোরেলগঞ্জের ছোলমবাড়িয়া বাসস্ট্যান্ড থেকে শতাধিক যাত্রী নিয়ে ট্রলারটি মোরেলগঞ্জ পশ্চিমপাড়ে পুরাতন ঘাটে আসছিল। ট্রলারটি কিনারের কাছাকাছি পৌঁছালে খুলনাগামী একটি নৌ-বাহিনীর জাহাজের ঢেউয়ের তোড়ে ট্রলারটির তলা ফেটে উল্টে যায়। এসময় ট্রলারটি থেকে ৫০/৬০ জন যাত্রী সাঁতরে কিনারে উঠতে সক্ষম হলেও অধিকাংশ যাত্রী নিখোঁজ হয়। আহত ও উদ্ধারকৃত যাত্রীদের বিভিন্ন ক্লিনিক ও হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে। ট্রলার ডুবির ঘটনায় ৪ জনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ৩ জনের নাম পরিচয় জানা গেছে। এরা হলেন- বলইবুনিয়া ইউনিয়নের কালিকাবাড়ি গ্রামের মহসিন আলীর স্ত্রী বিউটি বেগম (৩৮), গুয়াবাড়িয়া গ্রামের হোসেন হাওলাদারের স্ত্রী পিয়ারা বেগম (৫০) ও চিংড়াখালী গ্রামের ইউনুস আলীর স্ত্রী সুফিয়া (৭৫)। নিখোঁজদের মধ্যে রয়েছে- কাছিঘাটা গ্রামের হেলেনা বেগমের ৬ বছরের শিশু, ছোট জামুয়া গ্রামের মনোয়ারা বেগম (৩৮), উত্তর ফুলহাতা গ্রামের হাসিব (৮), ছোটপড়ি গ্রামের নাসিমা আকতার (১৮), রায়েন্দা বাজারের আবির (১৭), বদনীভাঙ্গা গ্রামের বশির (২২), কাছিকাটা গ্রামের আব্দুল মজিদ শেখ, বুরুজবাড়িয়া গ্রামের সুলতান আহমদ (৬০), ভাইজোড়া গ্রামের খাদিজাসহ (৪০) অর্ধশত। গুরুতর আহতদের মধ্যে মোরেলগঞ্জ পরিবার পরিকল্পনা অফিসার রেবেকা খাতুন, খাদিজা বেগম ও আবুল খায়েরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাগেরহাটের সহকারী পুলিশ সুপার (এসপি) মনির হোসেন পরিবর্তন ডটকমকে জানান, অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে যাওয়ার সময় প্রবল জোয়ারে ট্রলারটি ডুবে গেছে। তার কাছ ১৩ জন নিখোঁজের তালিকা রয়েছে বলে জানান তিনি।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: