২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

১৪ বছরেই কুমারিত্ব হারান অ্যাঞ্জেলিনা জোলি








গল্পটা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি অভিনীত ‘অরিজিন্যাল সিন’ মুভির চিত্রনাট্যকেই যেন পুনরাবৃত্ত করে। সিনেমার সেই রক্ত, ছুরিকাঘাত, ইনসেস্ট আর অদ্ভুত থেকে অদ্ভুততর যৌনাচারের কাহিনী। কেবল পার্থক্য এখানেই— এই গল্পটা বাস্তব। কোনো সেলুলয়েড-মায়া তাকে সৃষ্টি করেনি।

নিজের যৌনজীবন নিয়ে সম্প্রতি মুখ খলেছেন হলিউডের এ অভিনেত্রী। এই সুন্দরী জানিয়েছেন, তিনি জীবনে ৪ জন পুরুষের শয্যাসঙ্গিনী হয়েছেন। এদের মধ্যে তিনজনই তার কোনো না কোনো সময়ের স্বামী। কিন্তু সম্প্রতি এই ৪১ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী যা জানালেন, তাকে লিপিবদ্ধ করতে বসলে কলমের কালি শুকিয়ে যায়।

২০ অগস্ট অ্যাঞ্জেলিনা তার বর্তমান স্বামী অভিনেতা ব্র্যাড পিটের বিরুদ্ধে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা করেছেন। কারণ হিসেবে জানিয়েছেন, দু’জনের অসেতুসম্ভব মত।

বিচ্ছেদের বিষয়ে তার সঙ্গে গণমাধ্যমগুলো যোগাযোগ করলে তিনি প্রাসঙ্গিকতা না হারিয়েই বলে যান তার জীবনের এমন কিছু ছায়াচ্ছন্ন অধ্যায়ের কথা, যা ‘অরিজিন্যাল সিন’-এর মতো শ্বাসরোধকারী ছবির চিত্রনাট্যকেও হার মানায়।

• ২০০৭-এই অ্যাঞ্জেলিনা এক পত্রিকাকে জানিয়েছিলেন, কিন্ডারগার্টেন-এ পড়ার সময়েই তিনি ‘কিসি গার্লস’ নামের এক গ্রুপের সদস্য ছিলেন। নিতান্ত শিশুদের নিয়ে তৈরি এই গ্রুপের কাজ ছিল সহপাঠী ছেলেদের সঙ্গে এমন কিছু খেলায় লিপ্ত থাকা, যার গায়ে যৌনগন্ধ আঁট হয়ে বিরাজ করে।

• মাত্র ১৪ বছর বয়সে কুমারিত্ব হারান এই হার্টথ্রব। আর এ বিষয়ে তার মা সবকিছুই জানতেন। যে সময়ে তিনি তার তৎকালীন বয়ফ্রেন্ডকে নিয়ে দরজা বন্ধ করেছিলেন, সেই সময়ে তার মা পাশের ঘরেই ছিলেন।

• গোটা টিন এজ জুড়ে অ্যাঞ্জেলিনা এক বিচিত্র ফেটিশকে প্রশ্রয় দেন। ছুরিকে ঘিরে আবর্তিত হতে থাকে তার লিবিডো। তুমুল আশ্লেষের সময়েও তার মনে হতে থাকে কিছুই যথেষ্ট নয়। একদিন নিবিড় মুহূর্তে তার বয়ফ্রেন্ডকে তিনি ছুরি দিয়ে আঘাত করেন। বয়ফ্রেন্ডও তাকে প্রত্যাঘাত করেন। রক্তপাত তকে এক বিপুল আনন্দের সন্ধান দেয়। কেটে-কুটে রক্তাক্ত হতে থাকে অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ। কিন্তু শরীরী খেলায় সেই যন্ত্রণা অনুভূত হত না।

• ২০ বছর বয়স নাগাদ এমন কোনো ড্রাগ বাজারে ছিল না, যা অ্যাঞ্জেলিনা নেননি। কোকেন, এলএসডি, হেরোইন— নেশার তুমুল স্রোতে নিজেকে ভাসিয়ে দেন তিনি। তার প্রথম স্বামী জনি লি মিলার তাকে সেই অবস্থা থেকে উদ্ধার করেন, একথা তিনি আজও মুক্তকণ্ঠে স্বীকার করেন।

• ১৯৯৬-এ তার সঙ্গে আলাপ হয় মডেল-অভিনেত্রী জেনি শিমিজুর। তার মধ্যে এক পরিপূর্ণ নারীকে খুঁজে পান লারা ক্রফ্টের চরিত্রাভিনেত্রী। শুরু হয় এক তুফানি সমকামী রোমান্স।

• ২০০০ সালের গোল্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে অ্যাঞ্জেলিনাকে দেখা গিয়েছিল তার নিজের ভাইয়ের সঙ্গে নিবিড় ওষ্ঠচুম্বনে আবদ্ধ হতে। পরে অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডের রোড কার্পেটেও একই দৃশ্য দেখা গিয়েছিল।

• ২০০০-এ তিনি বিয়ে করেন বিলি বব থর্নটনকে। সেই বিয়ে টিকেছিল মাত্র তিন বছর।

• পরের স্বামী ব্র্যাড পিট। বিয়ের আয়ু মাত্র দু’বছর।

বার বার বাসনা-তুফানে ওঠানামা। তবু কি মিটিল সাধ? না, একেবারেই নীরব অ্যাঞ্জেলিনা এই বিষয়ে। ব্র্যাডের পরে কে? জিজ্ঞাসা করেনি কেউ। তবে এমনটা জিজ্ঞাসা করাই যেত যে, ব্র্যাডের পরে কি আবার বিবাহ? নাকি আবার বাসনা-তুফানে ভাসবেন দুই সন্তানের মা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি?

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: