৩০ জুলাই, ২০১৬

যশোরে মুক্তিযুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধে গ্রেফতার ১







মুক্তিযুদ্ধে  মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগে আব্দুল লতিফ ওরফে ‘লতিফ রাজাকার’ (৬২) নামে ১ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
যশোর সদরের আবাদকচুয়া সাতঘর গ্রাম থেকে আজ বৃহস্পতিবার ভোরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার লতিফ ওই গ্রামের মৃত শামছুল হকের ছেলে।
কোতোয়ালি থানার (ওসি, তদন্ত) শ্যামলাল নাথ দাবি করেন, গ্রেফতার লতিফ ১৯৭১ সালের মানবতাবিরোধী অপারাধের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তিনি স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় আবাদ কচুয়া গ্রামের রাজাকার কমান্ডার মওলানা আব্দুল মালেক মোড়লের হাত ধরে যশোরে রাজাকারদের আস্তানা আনসার ক্যাম্পে নিজের নাম লেখান। ওই সময় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী দিয়ে তিনি বহু লোককে হত্যা করিয়েছেন।
এ ছাড়া নারী ধর্ষণ, লুটপাট, বসতবাড়িতে অগ্নিসংযোগসহ মুক্তিযোদ্ধাদের বিষয়ে গোপন খবর আদানপ্রদানের সঙ্গে তিনি জড়িত ছিলেন। এ সব কারণে এলাকাবাসী এখনও তাকে ‘লতিফ রাজাকার’ হিসেবেই ডাকে।তবে গ্রেফতার লতিফের দাবি, তিনি রাজাকার ছিলেন না। তবে রাজাকার কমান্ডার মওলানা আব্দুল মালেক মোড়লের সঙ্গে আনসার ক্যাম্পে রাজাকারদের ক্যাম্পে নাম লেখাতে গিয়েছিলেন। সে সময় তার বয়স কম থাকায় রাজাকাররা তার নাম তালিকাভুক্ত করেনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৫ ঘণ্টা, ২৮ জুলাই ২০১৬,

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: