১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৫

অবশেষে ভ্যাট প্রত্যাহার রাজপথ ছাড়ল উল্লসিত শিক্ষার্থীরা

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফির ওপর আরোপিত সাড়ে ৭ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার করে নিয়েছে সরকার। গতকাল সোমবার বিকেলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান ইত্তেফাককে জানান, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফির ওপর আরোপিত ভ্যাট প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে। এরআগে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলোচ্য ভ্যাট প্রত্যাহারে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে অর্থমন্ত্রীকে নির্দেশনা দেন। তবে সকালে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ছাত্র লীগ ভ্যাট প্রত্যাহার করতে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ জানায়।

বিকেলে অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “সরকার কোনোমতেই শিক্ষাঙ্গনে কোনো প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে চায় না এবং জনজীবনে অসুবিধাও সৃষ্টি করতে চায় না সেই দৃষ্টিকোণ থেকে বিবেচনা করে সরকার ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিক্যাল কলেজ ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের উপর যে সাড়ে ৭ শতাংশ মূসক আরোপিত হয় সেটি প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।” বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকরা তাদের আন্দোলন ‘বন্ধ করে’ শিক্ষাঙ্গনে ফিরে যাবেন এবং দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় কোনো বাধা সৃষ্টির সুযোগ দেবেন না বলেও ওই বিজ্ঞপ্তিতে আশা প্রকাশ করা হয়।

সরকারের এ সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর রাজধানীতে গত বুধবার থেকে শুরু হওয়া ছাত্র বিক্ষোভের অবসান হল। গত কয়েকদিনের ছাত্র বিক্ষোভে অচল রাজধানীতে জনজীবন মারাত্মক         যন্ত্রণায় নিপতিত হয়। ভ্যাট প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তে শিক্ষার্থীরা আনন্দ মিছিল করেন। তারা অবরোধ তুলে নিলে ফের রাস্তায় যান চলাচল শুরু হয়। প্রায় তিন ঘণ্টা পর রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে অবরোধে সৃষ্ট অচলাবস্থা স্বাভাবিক হতে থাকে। দুর্ভোগে পড়া পথচারীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসে।

এর অ

াগে সকাল থেকেই রাজধানীর কমপক্ষে ৯টি স্থানে রাস্তা অবরোধ করে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে।

রামপুরা এলাকায় ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা দাবির পক্ষে সকাল ১০টা থেকে রাস্তা অবরোধ করেন। এছাড়া একই সময়ে ধানমন্ডি-২৭ এলাকায় ড্যাফোডিল, ইউল্যাব, ওয়ার্ল্ড, স্টামফোর্ড ও আশা ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেন। কাকলী-বনানী এলাকায় রাস্তা অবরোধ করে আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি, নর্দান ইউনিভার্সিটি, রয়েল ইউনিভার্সিটি, অতীশ দীপঙ্কর ও শিক্ষার্থীরা। উত্তরা হাউজ বিল্ডিং এলাকার রাস্তা অবরোধ করেন শান্ত মারিয়াম, উত্তরা ইউনিভার্সিটি, এশিয়ান ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা। অবরোধ চলার কারণে ওই সব এলাকায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ভয়াবহ দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ।

পরে বেলা সোয়া ১২টার দিকে মন্ত্রিসভায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে টিউশন ফি’র ওপর আরোপিত ভ্যাট প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের খবর গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়। বিভিন্ন মাধ্যমে এটি সব শিক্ষার্থীরা জানতে পারে। এতে সব স্থানে বিক্ষোভ মিছিল পরিণত হয় আনন্দ মিছিল। সেই সঙ্গে তাদের আন্দোলন সফল হয়েছে উল্লেখ করে ‘ভি চিহ্ন’ দেখিয়ে তারা উল্লাস করতে থাকেন। একে অপরের হাত ধরে গোলবৃত্ত করে আনন্দ মিছিল করে।

রামপুরায় ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরাও অবরোধ থেকে সরে এসে আনন্দ মিছিল করেন। রাজধানীর ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্র রফিকুল আলম বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাট আরোপ হলে আমাদের পড়ালেখা চালিয়ে যাওয়া অনেক কঠিন হয়ে যেতো। ভ্যাট প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তে আমরা অনেক বেশি খুশি।

প্রসঙ্গত, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর আরোপিত অতিরিক্ত সাড়ে সাত শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে ৯ সেপ্টেম্বর সড়ক অবরোধ করেন ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা। এ সময় তীব্র যানজট সৃষ্টি হলে পুলিশ শিক্ষার্থীদের ওপর লাঠিচার্জ করে। এতে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তত ৩০ শিক্ষার্থী আহত হয়। ভ্যাটের দাবি আন্দোলনে নেমে আহত হবার খবরে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে সব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর মাঝে। ওই দিনই ফেসবুকে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচির ঘোষণা দেয় শিক্ষার্থীরা। রাজধানীর প্রায় সব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বৃহস্পতিবার সড়ক অবরোধ ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। ওই দিন গোটা রাজধানীতে অচলাবস্থার সৃষ্টি হলে ভয়াবহ এক ভোগান্তিতে পড়তে হয় সাধারণ মানুষকে। দু’দিন বিরতি দিয়ে গত রবিবার আবারো রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে দাবির পক্ষে আন্দোলন অব্যাহত রাখেন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

ভ্যাট প্রত্যাহারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের এ অবরোধ কর্মসূচির অবসান হয়।

ভ্যাট প্রত্যাহার করে

এনবিআরের আদেশ জারি

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য জারি করা মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) প্রত্যাহার করে ‘বিশেষ আদেশ’ জারি করেছে রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। গতকাল সোমবার এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান স্বাক্ষরিত ওই আদেশে বলা হয়, এটি গত ৪ জুন থেকে কার্যকর হবে। অর্থাত্ ৪ জুন থেকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কোন ধরণের ভ্যাট আদায় করে থাকলে তা শিক্ষার্থীদের ফেরত দিতে হবে।

এনবিআরের ওই আদেশে বলা হয়, যেহেতু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিক্যাল ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজসমূহ উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের জন্য অতিরিক্ত ব্যয় করা হয় এবং এর উপর ভ্যাট আরোপ করলে তাদের ব্যয় আরো বাড়বে সে জন্য এসব সেবাকে ভ্যাট থেকে অব্যাহতি দেয়া হলো। বিদ্যমান ভ্যাট আইনের সংশ্লিষ্ট ধারার প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ অব্যাহতির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: