৮ জুলাই, ২০১৫

যশোরে ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হামলা : আটক ৩

যশোরে জেলা প্রশাসনের এক ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার রাতে উপশহরের এফপিএবি রেস্টহাউজের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে হামলাকারীদের পালিয়ে যেতে সহযোগিতা করার অভিযোগে উপশহর ইউপি চেয়ারম্যান কাজী আজগর আলীকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। একই সাথে আটক করা হয়েছে হামলায় জড়িত শাহিনের ভাই লিটন ও রবিউল ইসলামের ভাই রেজাউলকে।

পুলিশ ও এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে উপশহরের এফপিএবি রেস্টহাউজে অবস্থান করছিলেন জেলা প্রশাসনের একজন ম্যাজিস্ট্রেট। রাত ৮টার দিকে তিনি রেস্টহাউজের দ্বিতীয় তলার বেলকনিতে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এসময় নিচে উপশহরের বি-ব্লকের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে শাহিন ও নূর মোহাম্মদের ছেলে রেজাউল রেস্টহাউজের সামনেই অবস্থান করছিলেন। তাদের অবস্থান সন্দেহজনক হওয়ায় ম্যাজিস্ট্রেট তাদের দিকে নজর রাখছিলেন।

বিষয়টি দুইজন বুঝতে পেরে নিচ থেকে চিৎকার দিয়ে ম্যাজিস্ট্রেটকে ‘কি দেখছেন’ বলে ধমক দিন। ম্যাজিস্ট্রেট তাদের নিচের দারোয়ানের কাছ থেকে পরিচয় জেনে নিতে বলেন। তখন দুইজন ম্যাজিস্ট্রেটকে গালি দেন। এসময় দুই তলা থেকে ম্যাজিস্ট্রেট নিচে নেমে এলে তার ওপর হামলা করেন শাহিন ও রেজাউল।

এসময় দারোয়ানসহ স্থানীয়রা এগিয়ে এসে ম্যাজিস্ট্রেটকে রক্ষা করে ওই দু’জনকে আটকে রাখেন। বিষয়টি ম্যাজিস্ট্রট তাৎক্ষণিকভাবে যশোর জেলা প্রশাসককে অবহিত করেন। পরে জেলা প্রশাসন থেকে পুলিশ প্রশাসনকে জানানো হলে ঘটনাস্থলে যান এএসপি ভাস্কর সাহাসহ পুলিশের কর্মকর্তারা। কিন্তু এর আগেই উপশহর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাজী আজগর আলী ঘটনাস্থলে পৌঁছে শাহিন ও রেজাউলকে জনগণের কাছ থেকে ছাড়িয়ে নেন।

যশোর কোতোয়ালি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) শেখ গণি মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেছেন, চেয়ারম্যান কাজী আজগর আলীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত দুইজনকে হাজির করা হলে তাকে ছেড়ে দেয়া হবে।

তবে এ ব্যাপারে যশোরের জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনা সম্পর্কে কোনো তথ্য প্রদান বা মন্তব্য করতে রাজী হননি।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: