২২ মে, ২০১৫

যশোর মেডিকেলে ডাক্তারের অবহেলায় রোগী মৃত্যু ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

অবশেষে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসকের অবহেলায় রোগী মৃত্যুর ঘটনায় তিন সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। হাসপাতাল সূত্র জানায়, একই সঙ্গে সঠিক সময়ে কর্মস্থলে আগমণ ও প্রস্থানের নির্দেশ দিয়ে মেডিকেল কলেজের সকল চিকিৎসককে চিঠি দিয়েছেন কলেজ অধ্যক্ষ মাহাবুব উল মাওলা চৌধুরী। আগামীতে যদি কেউ কলেজের নিয়ম ভঙ্গ করে তবে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।উল্লেখ্য যে, গত ১৭ মে (রোববার) বিকালে মহিলা সাজার্রি ওয়ার্ডে অপারেশন পরবর্তী ব্যবস্থাপত্র না পেয়ে খাদিজা বেগম নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়। এ নিয়ে রোগীর স্বজন ও হাসপাতাতালে কর্মরত চিকিসক ও নার্সদের মধ্যে তর্কবিতর্ক ও হট্টগোল হয়। খবর পেয়ে হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্ববধায়ক ওয়ার্ডে গিয়ে রোগীর স্বজনদের বুঝিয়ে শান্ত করেন। এ সময় তিনি স্বজনদের অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সোমবার প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে আশস্ত করেন। কিন্তু তা হয়নি। পরে বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন পত্রিকায় লেখালেখি হয়। প্রথমে কর্তৃপক্ষ বিষয়টি এড়িয়ে যাবার চেষ্টা করে। একপর্যায়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।খাদিজা বেগম (৪৫) বাঘারপাড়া উপজেলার নারিকেলবাড়িয়া বলরামপুর গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের স্ত্রী। অভিযোগ রয়েছে আভিযুক্ত চিকিৎসক এ এইচ এম আব্দুর রউফ বিষয়টি আঁচ করতে পেরে কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ১০ দিনের ছুটি নিয়ে নিজেকে রক্ষার তদবির মিশনে নেমেছেন। ইতিপূর্বেও ডা. রউফের বিরুদ্ধে দায়িত্ব পালনে অবহেলার অভিযোগ রয়েছে। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয় না।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

1 টি মন্তব্য:

  1. অভিযোগ গুরুতর ! আর্থপেডিক সারজারির রুগি এক বেলা ওষুধ না খেলে মরে না !মিত্যুর অন্য কোন কারন আছে !

    উত্তর দিনমুছুন