৯ ফেব, ২০১৫

ঢাকা-যশোর-কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

ঢাকা ও কুমিল্লায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুইজন নিহত হয়েছেন। যশোরে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন এক যুবক। রোববার ভোরে এ পৃথক বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহতরা নিজ নিজ এলাকার সন্ত্রাসী এবং তাদের বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা আছে দাবি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর। শনিবার রাতে কুমিল্লায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ কালা স্বপন (৩৯) নিহত হন। রোববার ভোরে যশোরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রাজু ওরফে ভাইপো রাজু (৩৬) রাজধানীতে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন জসিম (২৫) নামে এক যুবক।
র‌্যাবের যশোর ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর আশরাফ উদ্দিন জানান, শনিবার রাতে রাজুকে আটকের পর ভোররাতে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে যায় র‌্যাব। ভোর ৫টার দিকে শহরতলীর মড়লিতে যশোর-খুলনা মহাড়কের পাশে ইমাম পেট্রোল পাম্পের বিপরীতে একটি ইটভাটার কাছে পৌঁছালে রাজুর সহযোগীরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এসময় র‌্যাবও গুলি করে। র‌্যাবের এই কর্মকর্তার দাবি, উভয় পক্ষে গুলি বিনিময়কালে পালাতে গিয়ে নিজের সহযোগীদের গুলিতে রাজু নিহত হন। ঘটনাস্থল থেকে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র ও দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। নিহত রাজু যশোর শহরের গাড়িখানা রোড এলাকার আজিবর রহমানের ছেলে। তার বিরুদ্ধে যশোরের সাবেক পিপি এ জেড এম ফিরোজের ছেলে অর্নব হত্যা মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।
কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানার ওসি প্রশান্ত পাল জানান, শনিবার সকালে সদর কোর্টবাড়ি এলাকা থেকে স্বপনকে গ্রেফতার করা হয়। রাত দেড়টার দিকে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে বেরোলে ভাটপাড়া এলাকায় পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে স্বপনের সহযোগীরা। এসময় পুলিশও পাল্ট গুলি ছোঁড়ে। পরে স্বপনের গুলিব্ধি লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত স্বপন উপজেলার পদুয়ারবাজার বিশ্বরোড এলাকার উত্তর রামপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি যুবলীগ নেতা মোস্তাক হত্যাসহ ২৮ টি মামলার আসামি বলে জানান ওসি।
রাজধানীতে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক যুবকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। নিহত জসিম (২৫) কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সম্পৃক্ত কি না তা জানা যায়নি। হরতাল-অবরোধে বাসে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপে জড়িত সন্দেহে তাকে আটক করা হয়েছিল বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান জানান, জসিমকে আগারগাঁও থেকে আটক করা হয়েছিল। ভোরে তাকে নিয়ে তার অন্য সহযোগীদের ধরতে আগারগাঁওয়ের সাতফুট রাস্তা এলাকায় গেলে তারা পুলিশের ওপর গুলি চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এসময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে আহত হন জসিম। স্থানীয় একটি ক্লিনিকে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন বলে পুলিশ কর্মকর্তা।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: