১৬ ফেব, ২০১৫

চমক নিয়ে আসছেন মমতা!

তিনদিনের ঢাকা সফরে এসে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কলকাতায় সফরের আমন্ত্রণ জানাবেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি? বলবেন, দুই বাংলার সম্পর্কের কথা। মাঝে তিস্তার পানি বন্টন, স্থল সীমান্ত চুক্তি নিয়ে দুই বাংলার সম্পর্কে শীতলতা দেখা দিয়েছিল তা কাটিয়ে নতুন করে শুরুর কথা বলবেন মমতা। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের স্মৃতিবিজড়িত শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতী চত্বর সংলগ্ন অঞ্চলে গড়ে উঠবে বাংলাদেশ ভবন। মমতা ব্যানার্জি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করবেন ভবনটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করার।
তিনদিনের সফরে ১৯ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় ঢাকা আসছেন মমতা ব্যানার্জি। সঙ্গে ৩৩ সদস্যের প্রতিনিধি দল। সেই দলে আছেন অভিনেতা ও এমপি দেব, অভিনেত্রী ও এমপি মুনমুন সেন, অভিনেতা প্রসেনজিত, গায়ক ইন্দ্রনীল সেন, পশ্চিমবঙ্গের পর্যটনমন্ত্রী ব্রাত্য বসু, পৌর ও নগরায়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, শিল্পপতি হর্ষ নেওটিয়া প্রমুখ। প্রতিনিধি দলে রয়েছেন ২০ জন সাংবাদিক। ঢাকার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মমতাকে স্বাগত জানাবেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ? থাকবেন ঢাকায় ভারতীয় দূতাবাসের কর্মকর্তারা।
২০ তারিখে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক ছাড়াও রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাতের পরিকল্পনা রয়েছে। ২০ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাতে ঢাকার কেন্দ্রীয় ভাষা শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি? দেখবেন ভাষা শহীদদের স্মরণে রাতভর চলা অনুষ্ঠান ? ২১ ফেব্রুয়ারি তিনি কলকাতায় ফিরবেন। পরিকল্পনায় রয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাড়ি ঘুরে দেখার। ঢাকার পথে সুসজ্জিত রিকশায় করে ঘোরার এবং একুশে বইমেলায়ও যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে মমতার। এই সফরে সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় এবং গায়ক কবির সুমনের যাওয়ার কথা থাকলেও তাঁরা যাচ্ছেন না।
মমতার ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে খবর, এই ঢাকা সফর নিয়ে তিনি যথেষ্ট উচ্ছ্বসিত। অতীতে বাংলাদেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকলেও তাঁকে না জানিয়ে ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং তিস্তার পানি বন্টন নিয়ে একতরফা সিদ্ধান্ত নেয়ায় ২০১১ সালে শেষ মুহূর্তে ঢাকা সফর বাতিল করেছিলেন মমতা ব্যানার্জি। তিস্তার কতটা পানি বাংলাদেশকে দেয়া সম্ভব তা নিয়ে এক সদস্যের কমিটি গঠন করেছিলেন। মমতার ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানা গেছে, পুরনো কথা মনে রাখতে চান না মুখ্যমন্ত্রী। তাই বাংলাদেশের মানুষের জন্য কিছু উপহার নিয়ে যেতে চান মমতা ব্যানার্জি। কি সেই উপহার? এখনি বলতে চাইলেন না সূত্রটি। তবে বললেন চমক আছে।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios: